এলো বসন্ত


প্রকাশিত:
১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১৪:০৬

Print Friendly and PDF
ফাইল ফটো

এলো বসন্ত। ফাগুনের হাত ধরাধরি করে এলো ঋতুরাজ। বসন্তের প্রথম দিন আজ। প্রতিবারের মতোই রাঙিয়ে দিতে এসেছে ফাগুন। শূন্য হৃদয় ভরিয়ে দিতে এসেছে।

ষড়ঋতুর বাংলাদেশ প্রতি দুই মাস অন্তর রূপ পরিবর্তন করে। শুরু হয় গ্রীষ্ম দিয়ে। বসন্ত দিয়ে শেষ। বিপুল ঐশ্বর্যের অধিকারী এই বসন্ত। বৃক্ষের নবীন পাতায় আলোর নাচন। ফুলে ফুলে বাগান ভরে উঠেছে। মৌমাছির গুঞ্জন। কোকিলের কুহুতান। সব, সবই বসন্তকে আবাহন করছে। জানিয়ে দিচ্ছে- আজি বসন্ত জাগ্রত দ্বারে।

ফাগুনের এই ক্ষণে বিবর্ণ প্রকৃতি জেগে উঠেছে নতুন করে। সেই বর্ণনা দিতে গিয়ে হয়তো উচ্ছ্বসিত কবি সুভাষ মুখোপাধ্যায় বলেছিলেন- ফুল ফুটুক না ফুটুক/ আজ বসন্ত...।

মনের গহীন কোণে অতি সূক্ষ্ম যে চাঞ্চল্য, সে তো কেবল বসন্তই জাগাতে পারে! প্রিয়জনের স্পর্শ নিয়ে বাঁচার সুখেরই নাম বসন্ত। বুক ধুঁকপুক, সেই শিহরণ জাগানিয়া ফাগুন এসেছে।
প্রতি বছরের মতো আজও রাজধানীতে আয়োজন করা হবেয়েছে বসন্ত উৎসবের।

মানুষের ঢল নেমেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি, চারুকলার বকুলতলাসহ আশপাশের এলাকায়। বসন্তের ঢেউ আছড়ে পড়বে অমর একুশে গ্রন্থমেলায়। বইয়ের মেলা হয়ে উঠবে ফাগুনেরও। রমনা পার্ক, চন্দ্রিমা উদ্যানের সবুজের সঙ্গে আজ হলুদ রংটি মিলেমিশে একাকার হয়ে যাবে। কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস, রেস্তরাঁ সবখানে পরিলক্ষিত হবে উৎসবের রং।