অতিরিক্ত পণ্য বহন করলে গাড়ি নষ্ট হয়ে যাবে


২২ জানুয়ারী ২০১৯ ১৯:৩৯

আপডেট:
২২ জানুয়ারী ২০১৯ ২২:০১

নিটল টাটা নতুন গাড়ি নিয়ে এসেছে বাজারে, যার বিশেষত্ব হচ্ছে কোন অবস্থায় ১৬ টনের বেশি মাল বহন করতে পারে না। এর বেশি মাল পরিবহন করলে গাড়ি নষ্ট হয়ে যাবে।

টাটা বাংলাদেশের গাড়ির বাজারে দীর্ঘদিন থেকে তাদের ব্যবসা পরিচালানা করে আসছে। টাটা যেন বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়িয়ে তাদের গাড়ী এদেশে তৈরি করে বিদেশে রপ্তানী করে সেই আহ্বান জানান বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

আজ মঙ্গলবার (২২ জানুয়ারি) রাজধানীর একটি হোটেলে গাড়ির উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান। টাটা মটরস ও নিটল মটরস যৌথভাবে বাংলাদেশে বাজারে টাটা এলপিটি-১২১২ মডেলের গাড়িটি নিয়ে এসেছি।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এখন বাংলাদেশের রাস্তায় প্রচুর পরিমাণে পরিবহন দেখা যায়। আর এই পরিবহনগুলোই প্রমাণ করে যে বাংলাদেশের কি রকম পরিবর্তন হয়ে গেছে।

টিপু মুনশি বলেন, আমাদের দেশে যে ট্রাকগুলো রাস্তায় চলাচল করে তা রাস্তার জন্য খুবই ক্ষতিকর। এখন সময় এসেছে নতুন প্রযুক্তির গাড়ি ব্যবহারের। যা আমাদের রাস্তার খরচ অনেকাংশে কমিয়ে নিয়ে আসবে।

অনুষ্ঠানে নিটল নিলয় গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুল মাতলুব আহমাদ বলেন, আমাদের এ গাড়িটি সরকারের সড়ক আইন মেনে তৈরি করা হয়েছে। যার বিশেষত্ব হচ্ছে কোন অবস্থায় ১৬ টনের বেশি মাল বহন করতে পারে না। এর বেশি মাল পরিবহন করলে গাড়ি নষ্ট হয়ে যাবে। কোন মালিক চাবে না যে, তা গাড়িটি নষ্ট হয়ে যাক। আর আমাদের নতুনত্ব এখানেই। অন্যদিকে গাড়িতে বেশি মালামাল না উঠালে রাস্তার কোন সমস্যা হবে না বলেও জানান তিনি।

তিনি বাণিজ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ জানিয়ে বলেন, এখন যে ট্রাকগুলো রাস্তা মালামল পরিবহন তাদের বেশি লোড দেয়ার সুযোগ থাকছে। যার ফলে রাস্তা দ্রুত নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তাই এখন সময় এসেছে যে ট্রাক রাস্তা উপযুগি তাদেরকে বিশেষ সুবিধা দেয়ার।

এফবিসিসিআইর সাবেক এ সভাপতি বলেন, সরকার যদি মোটরগাড়ি তৈরিতে আমাদের বিশেষ সুযোগ করে দেয়, তাহলে টাটা বাংলাদেশে মোটর গাড়ি তৈরি করবে। আগামীতে আমরা মেইড ইন বাংলাদেশ পিক-আপ তৈরি করতে চাই। সেক্ষেত্রে সরকার যদি সহযোগিতা চান তিনি।

তিনি আরও বলেন, আজকে যে মডেলের গাড়ি উদ্বোধন হলো, তা বাংলাদেশের বাজারে একদম নতুন। গাড়িটি এদেশের মাঝারি আকারের ট্রাকের জগতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি জানান।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরোও বক্তব্য রাখেন, টাটা মটরসের রিজিওনাল ম্যানেজার আসিফ শামিম এবং নিটল নিলয় গ্রুপের ম্যানেজিং ডিরেক্টর আব্দুল মুসাব্বির আহমেদ।