জাবিতে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে প্রক্টরসহ আহত ১০


১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ২১:১৯

আপডেট:
২৪ মার্চ ২০১৯ ১২:৫১

ইন্টারনেট থেকে

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) ছাত্রলীগের দুই পক্ষের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়েছে। জাবির শাখা ছাত্রলীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চল ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেলের নেতাকর্মীদের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

আজ বুধবার বিকাল প্রায় ৬টার সময় ক্যাম্পাসের বটতলা এলাকায় এ সংঘর্ষে ভারপ্রাপ্ত প্রক্টরসহ ৬ জন আহত হয়েছেন।

বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ তার স্ত্রীকে নিয়ে ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসেন। কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে বর্তমান সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চলের সাথে তাদের দেখা হয়। এ সময় দুজনের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে বাগ্‌বিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে রাজিবের অনুসারীরা হল থেকে বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র নিয়ে বের হন। তারা ধাওয়া দিলে আবু সুফিয়ান হলে চলে যান। এরপর আবু সুফিয়ানের অনুসারীরাও অস্ত্র নিয়ে হল থেকে বের হন। বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা এলাকায় লাঠিসোঁটা, রামদা, ছুরি নিয়ে চলে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া। অন্তত ছয়টি গুলি ছোড়েন দুই পক্ষের নেতা-কর্মীরা। সংঘর্ষ থামাতে গেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান ইটের আঘাতে আহত হন। সংঘর্ষের সময় ইট-পাটকেলের আঘাতে দুই পক্ষের অন্তত ৬ জন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। প্রক্টরসহ আহত সবাই বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রে চিকিৎসাধীন।

সংঘর্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪টি হল- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, শহীদ সালাম বরকত হল, মওলানা ভাসানি হল, শহীদ রফিক-জব্বার হল, রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর হল ও আল বেরুনী হলের নেতাকর্মীরা অংশ নেয়।

রাজিব আহমেদ বলেন, ‘বাগ্‌বিতণ্ডার একপর্যায়ে চঞ্চল (আবু সুফিয়ান) ও তার অনুসারীরা আমাকে ও আমার স্ত্রীকে লাঞ্ছিত করেন।’

ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর ফিরোজ উল হাসান বলেন, ‘দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় অন্তত ৬ জন আহত হয়েছে বলে ধারণা করছি। পরিস্থিতি বর্তমানে শান্ত, তবে যেকোনো সময় আবার সংঘর্ষ হতে পারে। তাই নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশ মোতায়েন করা হচ্ছে।’

কান্ট্রিনিউজ২৪/এএইচ