থাইল্যান্ডে আশ্রয় পেলেন সৌদি তরুণী কুনুন


৯ জানুয়ারী ২০১৯ ১৯:৪৯

আপডেট:
২৩ জানুয়ারী ২০১৯ ০৯:৪৮

ইন্টারনেট থেকে

সৌদি তরুণী রাহাফ মোহাম্মেদ আল-কুনুনকে (১৮) সাময়িক আশ্রয় দিয়েছে থাইল্যান্ড। তাঁকে ব্যাংকক নেওয়া হয়েছে। সৌদি থেকে ডেকে আনা হচ্ছে তাঁর বাবা ও ভাইকে।

ঘরপালানো সৌদি তরুণী রাহাফ কুনুন থাইল্যান্ডের বিমানবন্দরে হোটেলকক্ষে নিজেকে আটকে রেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে ফেরত না পাঠানোর আবেদন জানান। পরে জাতিসংঘ তাকে বৈধ শরণার্থী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। অস্ট্রেলিয়া জানিয়েছে, তারা সৌদি তরুণীর ঘটনাটি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছে।

পারিবারিক সফরে কুয়েতে গিয়ে সেখান থেকে ব্যাংকক হয়ে অস্ট্রেলিয়া যাওয়ার চেষ্টা করেন কুনুন। কিন্তু যাত্রাবিরতির সময় তিনি থাইল্যান্ডের ব্যাংককের সুবর্ণভূমি বিমানবন্দরে আটক হন। ফিরতি টিকিট নেই উল্লেখ করে কুয়েতে ফেরত পাঠানোর জন্য থাই কর্তৃপক্ষ সুবর্ণভূমি বিমানবন্দরের ট্রানজিট এলাকায় একটি হোটেলের কক্ষে রাখে কুনুনকে। তবে ফেরত পাঠানোর জন্য আনতে গিয়ে বিপত্তিতে পড়ে থাই কর্তৃপক্ষ। দেশে ফিরতে অস্বীকৃতি জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাঁর ছবি পোস্ট করে বিশ্ববাসীর নজর কাড়েন। ফেরত পাঠালে পরিবারের সদস্যরা খুন করে ফেলবে এই শঙ্কায় রোববার থাইল্যান্ডের বিমানবন্দর থেকে টুইটারে পোস্ট দিয়েছিলেন রাহাফ কুনুন। এরপর গত সোমবার জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার সঙ্গে কথা বলার পর তিনি বিমানবন্দর ছেড়েছেন।

কান্ট্রিনিউজ২৪/এএইচ