মিডিয়ায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন জয়


২ জানুয়ারী ২০১৯ ২০:৫৮

আপডেট:
২ জানুয়ারী ২০১৯ ২১:১৩

কান্ট্রি নিউজ

অভিনেতা, নৃত্তশিল্পী ও মডেল জয় ইতিমধ্যে নিজের লেখা কয়েকটি টিভি নাটকে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছায়া নুপুর, শান্তি নিবাস, পুটি মাছের ভালোবাসা।
টেলিভিশন নাটক প্রসঙ্গে জয় বলেন, ভালো গল্পের দর্শক সব সময় আছে। একটি ম্যাসেজ সম্পন্ন গল্প এবং গল্পের প্রয়োজন অনুযায়ী আর্টিস্ট, টেকনিক্যাল সাপোর্ট ও অন্যান্য বিষয়গুলো সঠিকভাবে গুরুত্ব দিয়ে নাটক-সিনেমা, যাই নির্মান করা হোক দর্শক দেখবেই। নাটক সিনেমার মাধ্যমে সব শ্রেণীর মানুষের কথা বলতে হবে। কিছু নির্দিষ্ট আর্টিস্টের আচরন, কথা বার্তার ধরন অনুযায়ী শুধুমাত্র কমেডি নাটক নির্মান করলে সে নাটক তো প্রতিযোগীতায় টিকে না থাকার সম্ভাবনা থাকবেই। এতে দর্শকের মধ্যে একঘেয়েমীতাও সৃষ্টি হয়। সুতরাং এ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।
জয় বলেন আমার সুযোগ হয়েছে সরকারী অনুদানের ছবি ‘হরিজন’ এ কাজ করার। এ ছবিতে পরিচালক মীর্জা সাখাওয়াত হোসেন তুলে ধরেছেন সুবিধা বঞ্চিত জনগোষ্ঠী হরিজন সম্প্রদায়ের দৈনিন্দিন জীবনচিত্র। এভাবে ছবির মাধ্যমে জীবনের কথা বলতে হবে। একটি ছবি একটি জাতির বিবেক জাগ্রত করতে পারে। শতাব্দীর পর শতাব্দী ঐতিহ্য সংস্কৃতি ও ইতিহাসকে বাঁচিয়ে রাখতে পারে। সর্বোপরি একটি সভ্য জাতি গঠনে ভূমিকা রাখতে পারে।
লোক, সমসাময়িক ও ধ্রুপদী নৃত্ত ভরত নাট্টমের শিল্পী জয় বলেন আমাদের দেশে বর্তমানে নাচের চর্চা অনেক এগিয়ে। এখানে নৃত্য শিল্পীরা যার যার জায়গা থেকে ভালো কিছু করার চেষ্টা করছেন। তবে ধ্রুপদী নৃত্যের চর্চা এবং প্রদর্শনের সুযোগ থাকতে হবে। আমি আশাবাদী যদি আমরা ভালো কিছু করতে পারি তবে বিদেশী চ্যানেলগুলো এমনিতেই এখানে জনপ্রিয়তা হারাবে। সেজন্য আন্দোলন করতে হবে না।
মডেলিং পেশা সম্পর্কে জয় বলেন, মডেলিং তার নিজ গতিতে চলছে। এ সম্পর্কে আমি বেশি কিছু বলতে চাই না। বিশেষ করে বাংলাদেশ টেলিভিশনে অবুঝমন ছবির “শুধু গান গেয়ে পরিচয়” এই জনপ্রিয় গানটির মডেল হতে পেরে আমি মডেলিং এ আরো বেশী উৎসাহিত হয়েছি।