অপরাধীরা পার পাবে না: কাদের

নোয়াখালীতে গণধর্ষণের ঘটনায় গ্রেপ্তার ২


২ জানুয়ারী ২০১৯ ১৭:৫৯

আপডেট:
২ জানুয়ারী ২০১৯ ২০:১৬

ইন্টারনেট থেকে

নোয়াখালী সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবলী ইউনিয়নের বাগ্যা গ্রামে স্বামী সন্তানদের বেঁধে এক গৃহবধূকে গণধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলার আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। চরজব্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. নিজাম উদ্দিন জানান, মঙ্গলবার রাতে রামগতির আজাদ নগর এলাকায় তার এক আত্মীয়র বাড়ীতে অভিযান চালিয়ে স্বপনকে গ্রেপ্তার করা হয়। মামলার অপর আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চলছে। এর আগে, মামলার অপর আসামি বাদশা আলম ওরফে বাসুকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এদিকে এ ঘটনায় ঘটনায় অপরাধী যারাই হোক, কেউ পার পাবে না বলে হুঁশিয়ারি করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ভারতের বিদায়ী হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা আজ বুধবার বিকেলে সচিবালয়ে ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে সাক্ষাত করতে যান। সাক্ষাত শেষে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

দুপুরে ঘটনা তদন্তে মানবাধিকার কমিশনের অভিযোগ ও তদন্ত টিমের প্রধান আল মাহমুদ ফায়জুল কবিরের নেতৃত্বে তিন সদস্যদের তদন্ত কমিটি নির্যাতিত নারীকে দেখতে যান।

নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে নির্যাতিত নারী ও তার স্বামীর সঙ্গে ঘটনার বিষয়ে বিস্তারিত কথা বলেন। 

ভোটের দিন নৌকার সমর্থকদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডার পর এই ঘটনা ঘটেছে বলে ওই নারী দাবি করেছেন। উপজেলার চরজুবিলী ইউনিয়নের মধ্যবাগ্যা গ্রামে রোববার রাতে ওই নারীকে দলবেঁধে ধর্ষণ করা হয়।

ধর্ষিতা গৃহবধূ বলেন, রাত ১২টার দিকে এলাকার মোশারফ, সালাউদ্দিন, সোহেলসহ ১০-১২ জন তার বাড়িতে এসে প্রথমে বসতঘর ভাংচুর করে, ঘরে ঢুকে তার স্বামীকে পিটিয়ে আহত করে। পরে স্বামী ও মেয়েকে ঘরে বেঁধে রেখে তাকে গণধর্ষণ করে।

মামলায় পলাতক অপর আসামিরা হচ্ছে, সোহেল (৩৫), হানিফ (৩০), চৌধুরী (২৫), মোশারফ (২৮), সালা উদ্দিন (৩৫), আবুল (৪০) ও বেচু (২৫)।